সারমর্ম

সারমর্ম : দণ্ডিতের সাথে দণ্ডদাতা কাঁদে যবে সমান আঘাতে সর্বশ্রেষ্ঠ সে বিচার।

3/5 - (43 votes)
সারমর্ম : দণ্ডিতের সাথে  দণ্ডদাতা কাঁদে যবে সমান আঘাতে  সর্বশ্রেষ্ঠ সে বিচার।

দণ্ডিতের সাথে

দণ্ডদাতা কাঁদে যবে সমান আঘাতে 

সর্বশ্রেষ্ঠ সে বিচার।  যার তরে প্রাণ 

ব্যথা নাহি পায় কোনাে, তারে দণ্ড দান 

প্রবলের অত্যাচার।  যে দণ্ড বেদনা 

পুত্রেরে পার না দিতে, সে কারেও দিও না। 

যে তােমার পুত্র নহে, তারও পিতা আছে । 

মহা অপরাধী হবে তুমি তার কাছে।

সারমর্ম : অপরাধীর প্রতি সহানুভূতিশীল বিচারই আদর্শ বিচার। কেননা এতে অপরাধীর ভেতরে বিবেকবােধ জাগ্রত হয় এবং সে অপরাধ থেকে বেরিয়ে আসতে পারে। এ কারণে অপরাধকে গর্হিত চিহ্নিত করে অপরাধীকে মমতার চোখে দেখে সংশােধনমুখী করাই প্রকৃত বিচারকের দায়িত্ব।

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Related Articles

বিসিএস প্রস্তূতিসাধারণ জ্ঞান

প্রাচীন বাংলার ইতিহাস – বাংলার প্রাচীন জনপদ (সাধারণ জ্ঞান)

Rate this post

আজকের সাধারণ জ্ঞানের পর্বে প্রাচীন বাংলার ইতিহাস অধ্যায়ের বাংলার প্রাচীন জনপদ নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর নিয়ে আলোচনা করব। 

বাংলার প্রাচীন জনপদ সাধারণ জ্ঞান

প্রশ্ন : বাংলার প্রাচীন জনপদসমূহ কি কি?
উত্তর : গৌড়, বঙ্গ, পুণ্ড, হরিকেল, সমতট, বরেন্দ্র বা বরেন্দ্রভূমি, ও তাম্রলিপ্তি বা তাম্রলিপ্ত, চন্দ্রদ্বীপ, উত্তর রাঢ়, দক্ষিণ রাঢ়, বাংলা বা বাঙলা, দণ্ডভুক্তি, বিক্রমপুর, সপ্তগাঁও, কামরূপ, আরাকান, সূহ্ম প্রভৃতি। 

প্রশ্ন : সাতশতকের দিকে কে রাজা হয়ে মুর্শিদাবাদ হতে উক্কল (উত্তর উড়িষ্যা) পর্যন্ত এলাকাকে সংঘবদ্ধ করেন?
উত্তর : শশাঙ্ক। 

প্রশ্ন : শশাঙ্কের সংঘবদ্ধের পর বাংলা কোন তিনটি জনপদে পরিচিত ছিল?
উত্তর : পুন্ড্রবর্ধন, গৌড় ও বঙ্গ (বাকি জনপদগুলাে তিনটির সাথে বিলীন হয়)। 

প্রশ্ন : ‘মাৎস্যন্যায়’ বাংলার কোন সময়কাল নির্দেশ করে?
উত্তর : ৭ম-৮ম শতক। 

প্রশ্ন : বাংলা নামের উৎপত্তি সম্বন্ধে কোন গ্রন্থে উল্লেখ আছে?
উত্তর :আইন-ই-আকবরী।

প্রশ্ন : প্রাচীনকালে রাজশাহী কোন জনপদের আওতাভুক্ত ছিল?
উত্তর : পন্দড্রু ও বরেন্দ্র উভয় জনপদে। 

প্রশ্ন : বাংলাদেশের প্রাচীন জাতি কোনটি?
উত্তর : দ্রাবিড়। 

প্রশ্ন : প্রাচীন বাংলায় পুণ্ড নামটি কিসের ছিল?
উত্তর : জনপদের। 

প্রশ্ন : বাংলার আদি জনগােষ্ঠী কোন ভাষাভাষী ছিল?
উত্তর : অস্ট্রিক। 

প্রশ্ন :চীনা পর্যটক হিউয়েন সাঙ সপ্তম শতকের মাঝামাঝি কোন জনপদটি ভ্রমণ করে একটি বিবরণী লিখেন?
উত্তর : সমতট ।

প্রশ্ন :মহাস্থানগড় এবং প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন নগরী যে একই এটা শনাক্তকরণ করেন?
উত্তর : স্যার আলেক্সান্ডার কানিংহাম।

প্রশ্ন : বর্তমান বৃহৎ বরিশাল ও ফরিদপুর এলাকা প্রাচীনকালে কোন জনপদের অন্তর্ভুক্ত ছিল?
উত্তর : বঙ্গ।

প্রশ্ন : বর্তমান ঢাকা প্রাচীন বাংলার কোন জনপদেরঅন্তর্গত ছিল?
উত্তর :বঙ্গ।

প্রশ্ন :বঙ্গ জনপদের উৎপত্তি কিভাবে?
উত্তর :বঙ্গ নামের একটি জাতি থেকে। 

প্রশ্ন : বর্তমান বাংলাদেশের কোন দিকে বঙ্গ জনপদ গড়ে উঠেছিল?
উত্তর : পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব। 

প্রশ্ন : প্রাচীন শিলালিপিতে বঙ্গের কতটি অঞ্চলের  নাম পাওয়া যায়?
উত্তর : ২টি—বিক্রমপুর ও নাব্য। 

প্রশ্ন : ‘বঙ্গ’ নামে দেশের উল্লেখ কত বছর আগেও পাওয়া যায়?
উত্তর : খ্রিষ্টপূর্ব তিন হাজার বছর আগে। 

প্রশ্ন : কোন গ্রন্থে সর্বপ্রথম ‘বঙ্গ’ দেশের নাম পাওয়া। যায়?
উত্তর : ঋগ্বেদের ‘ঐতরেয় আরণ্যক’-এ। 

প্রশ্ন : সুপ্রাচীন বঙ্গ দেশের সীমা কোন গ্রন্থে উল্লেখ আছে?
উত্তর : ড. নীহাররঞ্জন রায়ের বাঙালির ইতিহাস গ্রন্থে।

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Related Articles

জীবনানন্দ দাশদেশের কবিতাবাংলা কবিতা

কবিতাঃ কোথাও দেখিনি আহা (জীবনানন্দ দাশ)

Rate this post

কোথাও দেখিনি আহা
জীবনানন্দ দাশ

কোথাও দেখিনি, আহা, এমন বিজন ঘাস প্রান্তরের পারে
নরম বিমর্ষ চোখে চেয়ে আছে- নীল বুকে আছে তাহাদের
গঙ্গা ফড়িঙের নীড়, কাঁচপোকা, প্রজাপতি, শ্যামাপোকা ঢের,
হিজলের ক্লান্ত পাতা,- বটের অজস্র ফল ঝরে বারে-বারে
তাহাদের শ্যাম বুকে,- পাড়াগাঁর কিশোরেরা যখন কান্তারে
বেতের নরম ফল, নাটা ফল খেতে আসে, ধুন্দুল বীজের
খোঁজ করে ঘাসে ঘাসে- বক তাহা জানেনাকো, পায়নাকো টের
শালিখ খঞ্জনা তাহা; লক্ষ-লক্ষ ঘাস এই নদীর দু’ধারে

নরম কান্তারে এই পাড়াগাঁর বুকে শুয়ে সে কোন্‌ দিনের
কথা ভাবে; তখন এ জলসিড়ি শুকায়নি, মজেনি আকাশ,
বল্লাল সেনের ঘোড়া- ঘোড়ার কেশর ঘেরা ঘুঙুর জিনের
শব্দ হ’তো এই পথে- আরো আগে রাজপুত্র কতো দিন রাশ
টেনে-টেনে এই পথে- কি যেন খুঁজেছে, আহা হয়েছে উদাস
আজ আর খোঁজাখুজি নাই কিছু- নাটাফলে মিটিতেছে আশ

কোথাও দেখিনি আহা © জীবনানন্দ দাশ

[post_ads]কবি পরিচিতিঃ 
জন্ম: ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৮৯৯
জন্মস্থানঃ বরিশাল
মৃত্যু: ২২ অক্টোবর ১৯৫৪ (বয়স ৫৫)
মৃত্যুর কারণ: ট্রাম দুর্ঘটনায়
সমাধি: ভারত
অন্য নাম: মিলু
পিতা: সত্যানন্দ দাশগুপ্ত
মাতা: কুসুমকুমারী দাশ
[সুত্রঃ জীবনানন্দ দাশ – উইকিপিডিয়া ##fa-external-link##]

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button