স্বাস্থ্য কথা

চোখের পাতা লাফানো স্বাভাবিক নাকি মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যা

Rate this post

নারী-পুরুষ উভয়েরই অমূল্য সম্পদ তাদের দুটি চোখ। এই চোখ দিয়েই আমরা দেখি রঙিন এই দুনিয়ার নানা দৃশ্য। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন এই মূল্যবান চোখ হঠাৎই অজানা কারণে কেঁপে ওঠে বা লাফায় কেন?

চোখের পাতা লাফানো বা কাঁপার কারণ না জানার পাশাপাশি চোখ কেঁপে বা লাফিয়ে ওঠার ফলাফল অনেকের অজানা। তাই আজকের আয়োজনে থাকছে এ বিষয়ে কিছু বিশেষ তথ্য।

হঠাৎ চোখ কেঁপে ওঠা বা লাফিয়ে ওঠাকে খারাপ কোনো অঘটনের সঙ্গে তুলনা করে থাকেন অনেকেই। তবে এর যৌক্তিকতা কতটুকু তা কি জানেন?

চোখের পাতা লাফানোর কারণ

চিকিৎসকরা বলছেন, ৬টি মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ চোখের পাতা কেঁপে বা লাফিয়ে উঠতে পারে। প্রথমে সাধারণ তিনটি কারণের কথাই জানাই। মানসিক চাপ বা দুশ্চিন্তা, ক্লান্তিবোধ,অতিরিক্ত ক্যাফেইন ও অ্যালকোহল সেবনে চোখ কাঁপা সমস্যায় ভুগতে পারেন আপনি। এই তিনটি কারণের প্রতিকার কিন্তু আপনার হাতেই রয়েছে। আপনি চাইলেই এর সমাধান করে এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

গুরুতর তিনটি কারণের মধ্যে রয়েছে দৃষ্টিগত সমস্যা, পুষ্টির ভারসাম্যহীনতা এবং অ্যালার্জির সমস্যা। এর যে কোনো একটি কারণে চোখ কাঁপা সমস্যায় ভুগলে একজন দক্ষ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।

কেননা, দৃষ্টিগত সমস্যায় মানুষের চোখের জ্যোতি কমে আসতে শুরু করে। এমন পরিস্থিতিতে যদি রোগী প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নিতে শুরু না করে তবে রোগীর চোখের জ্যোতি আরও কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

চোখের পাতা লাফালে করণীয়

চোখের পাতা লাফালে প্রাথমিকভাবে বাড়িয়ে দিন পানি খাওয়ার পরিমাণ। নিশ্চিত করুন ৮ ঘণ্টার গভীর ঘুমের। ম্যাগনেশিয়াম ও ভিটামিনের ঘাটতি ও চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে খেতে পারেন ডাব, দুধ, ডিম, বাদাম ও মৌসুমি ফলমূল।

তা ছাড়া আপনার জেনে রাখা ভালো, পুষ্টির ভারসাম্যের অভাবে চোখ কাঁপা শুরু করলে চিকিৎসকরা ধরে নেন শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি রয়েছে। যে কারণে সঠিক ডায়েট প্ল্যান আর ওষুধ এখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, যা একজন চিকিৎসক ছাড়া মোটেও সম্ভব নয়।

যদি অ্যালার্জির কারণে চোখ কাঁপা সমস্যার শুরু হয় তবে আপনার চোখের পানির সঙ্গে হিস্টামিন নির্গত হচ্ছে বলে ধরে নেয়া হয়, যা সঠিক সময়ে রোগী চিকিৎসা না নিলে বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

তাই এমন সমস্যার সম্মুখীন হলে দেরি না করে প্রাথমিকভাবে ডায়েট লিস্টে চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখে এমন খাবার গ্রহণ শুরু করুন। এতে কাজ না হলে চিকিৎসকরে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা গ্রহণ করুন আর বিপদমুক্ত থাকুন।

সূত্রঃ ইন্টারনেট।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Health Desk

সিনিয়র স্টাফ। স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা সমস্যা ও হেলথ টিপস নিয়ে নিয়মিত লিখছি। স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল।

Related Articles

Back to top button