বাংলা রচনা

মাদকাসক্তি ও তার প্রতিকার – রচনা – JSC SSC HSC PDF Download

4.2/5 - (2129 votes)

[box type=”note” align=”” class=”” width=””]আরও পড়ুনঃ অনুচ্ছেদঃ এইডস[/box]

মাদকাসক্তির প্রভাব

সারাবিশ্বে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও চোরাচালানের মাধ্যমে এর ব্যাপক প্রসার ঘটায় ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এটি এক মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করেছে করেছে। মাদকের নিষ্ঠুর ছোবলে অকালে ঝরে পড়ছে লক্ষ লক্ষ প্রাণ । অঙ্কুরেই বিনষ্ট হয়ে যাচ্ছে বহু তরুণের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ। আমাদের দেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মাদকাসক্তির ধ্বংসাত্মক প্রভাব নিম্নে আলোচনা করা হলোঃ-

যুবসমাজের ওপর প্রভাব : মাদকদ্রব্যের অবৈধ পাচার আমাদের দেশের যুবসমাজের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব বিস্তার করছে। যার ফলে যুবসমাজের বিরাট একটা অংশ অবচেতন ও অকর্মণ্য হয়ে পরছে।

[box type=”note” align=”” class=”” width=””]আরও পড়ুনঃ প্রতিবেদন: বর্তমান যুবসমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধের উপায় সম্পর্কে প্রতিবেদন[/box]

সামাজিক বিশৃঙ্খলা : মাদকাসক্তরা মাঝে মাঝে মাদকগ্রহণের জন্য চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি ইত্যাদি বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজ করে। যার ফলে সামাজিক শৃঙ্খলা নষ্ট হয়।

শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি : মাদকদ্রব্য সেবনের ফলে তারা মারাত্মকভাবে শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরিবার ও সমাজে তারা বিভিন্ন অস্বাভাবিক আচরণ করে।

পারিবারিক ভাঙন ও হতাশা বৃদ্ধি : মাদকদ্রব্য ও মাদকাসক্তির প্রভাবে আমাদের সমাজে পারিবারিক দ্বন্দ্ব-কলহ এবং এ সম্পর্কিত হতাশা বহুগুণে বৃদ্ধি পায়। পারিবারিক সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি নষ্ট হয়।

নৈতিক অধঃপতন : মাদকদ্রব্য গ্রহণের ফলে ব্যক্তির ব্যক্তিত্বের বাহ্যিক আচরণ প্রকাশ পায়। যেকোনো ব্যাপারে তখন ব্যক্তির মধ্যে চরম নৈতিক অধঃপতন লক্ষ করা যায়।

শিক্ষার ওপর প্রভাব : অনেক মেধাবী ও ভালো ছাত্রছাত্রী মাদকদ্রব্য গ্রহণ করে তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ জীবনকে নষ্ট করছে। তাই দেখা যায় মাদকাসক্তি সমস্যা আমাদের দেশের শিক্ষার ওপর মারাত্মক প্রভাব বিস্তার করছে।

মাদকের নেশা দ্রুত প্রসারের কারণ

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রায় ক্ষেত্রে হতাশা ও দুঃখবােধ থেকে সাময়িক স্বস্তিলাভের আশা থেকেই এই মারাত্মক নেশা ক্রমবিস্তার লাভ করছে। পাশাপাশি এ কথাও সত্য যে, অনেক দেশে বিপথগামী মানুষ ও বহুজাতিক সংস্থা উৎকট অর্থ লালসায় বেছে নিয়েছে রমরমা মাদক ব্যবসার পথ। এর সঙ্গে সম্পৃক্ত আছে বিভিন্ন দেশের মাফিয়া চক্র। মাদকের ঐ কারবারিরা সারা বিশ্বে তাদের ব্যবসা ও হীনস্বার্থ রক্ষায় এই নেশা পরিকল্পিতভাবে ছাড়িয়ে দিচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী মাদকদ্রব্যের ব্যবহার ও প্রতিক্রিয়া

মাদকদ্রব্যের ভয়াবহ বিস্তার গােটা বিশ্বের জন্যে আজ উদ্বেগজনক। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সমাজজীবনে এটা এক নম্বর সমস্যা। ওয়ার্ল্ড ড্রাগ রিপোর্ট ২০২২ অনুসারে ২৮৪ মিলিয়ন মানুষ মাদকে আসক্ত। যাদের বয়স ১৬ থেকে ৬৫ বছরের মধ্যে। [fn]Vienna, ২৭ জুন ২০২২, UNODC World Drug Report 2022 highlights trends on cannabis post-legalization, environmental impacts of illicit drugs, and drug use among women and youthunodc.org[/fn] যা বিগত বছরের তুলনায় ২৬ শতাংশ বেশি। আফ্রিকা ও ল্যাটিন আমেরিকায় মাদকে আসক্তদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। দিন দিন এর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু সমস্যা শুধু এখন ইউরােপ-আমেরিকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। এই অশুভ ছায়া এশিয়া-আফ্রিকার দেশে দেশে ইতােমধ্যেই আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাংলাদেশে মাদকের বর্তমান পরিস্থিতি

বাংলাদেশে মাদকের ব্যাপকতা ও ভয়াবহতা চরম পর্যায়ে। দিন দিন এর অবস্থার অবনতি ঘটছে। উন্নত বিশ্বের দেশগুলাের ন্যায় আমাদের দেশেও মাদকদ্রব্যের ব্যবহার আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের তরুণরা এখন ভয়াবহ মাদকাসক্তির শিকার। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের এক পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, দেশে বর্তমানে প্রায় দেড় কোটি মাদকসেবী রয়েছে। এর মধ্যে ১ কোটি মাদকাসক্ত।[fn]শেখ জাহাঙ্গীর আলম, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৬, দেশে মাদকসেবী দেড় কোটি, মাদকবিক্রেতা ৩০ লাখbanglanews24.com[/fn] প্রতিদিন গড়ে ২০ কোটি টাকার মাদক সেবন করে থাকেন তারা। এ হিসাব অনুযায়ী, মাসে তারা প্রায় ৬শ’ কোটি টাকার মাদক সেবন করেন। দেশে প্রায় ৩০ লাখ মাদক ব্যবসায়ী প্রতিদিন কমপক্ষে প্রায় দুইশ’ কোটি টাকার মাদক কেনা-বেচা করে থাকেন। দেশে শতকরা ১০ জন নারী মাদকাসক্ত, এদের মধ্যে তিন জন গৃহবধূ।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, বন্ধুদের মাধ্যমে প্রভাবিত হয়ে ৫৯ দশমিক ২৭ শতাংশ তরুণ-তরুণী, যুবক-যুবতী মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছেন। আর মাত্র ৩৬ দশমিক ৩৬ শতাংশ যুব সমাজ কৌতুহলবসত মাদক সেবনে ঝুঁকছে।[fn]স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, জুন ৩০, ২০২২, ৮০ শতাংশ মাদকাসক্তই তরুণ-যুবক!banglanews24.com[/fn] সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে মাদকসেবীদের ৮০ শতাংশই যুবক। যদিও কোনো মাদক বাংলাদেশে উৎপাদন করা হয় না। তবুও বিমান, স্থল ও নৌপথে দেশের সীমান্ত এলাকায় চোরাচালানের মাধ্যমে দেশে মাদক প্রবেশ করছে। এসব সরবরাহ পাচার ও বাজার তৈরির কাজে সহযোগিতা করছে দেশের আভ্যন্তরীণ মাদক কারবারিরা। ব্যবহৃত হচ্ছেন নিম্ন আয়ের মানুষ, নারী ও শিশুরা। নতুন নতুন কৌশল খাটিয়ে প্রাইভেট-কারে, সবজি-বাহী ট্রাক, ফলের ঝুড়ি, ট্রাকের পাটাতনের নিচে বিশেষ কায়দায় মাদক সরবরাহ করা হয়।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

আগের পাতা 1 2 3 4 5পরের পাতা

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

3 Comments

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button