Uncategorized

প্রতিবেদন: বর্তমান যুবসমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধের উপায় সম্পর্কে প্রতিবেদন

4.2/5 - (5 votes)
বর্তমান যুবসমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধের উপায় সম্পর্কে প্রতিবেদন
বর্তমান যুবসমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধের উপায় সম্পর্কে প্রতিবেদন

 বর্তমান যুবসমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধের উপায় সম্পর্কে তােমার মতামত জানিয়ে সংবাদপত্রে প্রকাশের উপযােগী একটি পত্র লেখ।

তারিখ : ০১ জানুয়ারি ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দ 
বরাবর
সম্পাদক, 
দৈনিক যুগান্তর 
১২/৭ উত্তর কমলাপুর, ঢাকা।

জনাব,
আপনার বহুল প্রচারিত ও জনপ্রিয় ‘দৈনিক যুগান্তর’ পত্রিকায় চিঠিপত্র কলামে নিম্নোক্ত সামাজিক সমস্যাভিত্তিক বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে প্রকাশপূর্বক যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য সবিনয় অনুরােধ জানাচ্ছি।

বিনীত
“ক”
নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর

যুব সমাজের নৈতিক অবক্ষয় : উত্তরণের উপায়

যৌবন জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ সময়। এ যৌবন হচ্ছে মানুষের অফুরন্ত প্রাণশক্তির আধার। যা জীবনকে করে গতিশীল ও প্রত্যাশাময়। দুর্বার উদ্দীপনা, ক্লান্তিহীন উদ্যম, অপরিসীম ঔদার্য্য, অফুরন্ত প্রাণচঞ্চলতা ও অটল সাধনার প্রতীক যৌবন মৃত্যুকে তুচ্ছ করে, সংস্কারের বেড়াজাল ছিন্নভিন্ন করে সকল বাধা-বিপত্তিকে পেরিয়ে এগিয়ে যায় সমাজ-প্রগতি ও নতুন স্বপ্নময় মুক্ত জীবনের পথে। চোখে স্বপ্ন থাকে নতুন পৃথিবী গড়ার। শুধু তাই নয়, অসীম উদ্দীপনা, সাহসিকতা, দুর্বার গতি, নতুন জীবন রচনার স্বপ্ন ও কল্যাণ ব্রত বৈশিষ্ট্যের অধিকারী যৌবনশক্তি আমাদের জাতীয় জীবনের চালিকাশক্তি হয়ে দাঁড়ায়। অথচ যুব সমাজ আজ বিপথগামী হয়ে দেশ ও জাতিকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এর কারণ নানাবিধঃ

  • নীতিজ্ঞানের অভাব
  • ধর্ম ও শিক্ষার আলাে থেকে বঞ্চিত হওয়া
  • রাজনৈতিক স্বার্থে যুব সমাজকে ব্যবহার করা
  • কুরুচিপূর্ণ স্যাটেলাইট চ্যানেলের অবাধ ব্যবহার
  • কর্মসংস্থান না থাকা, তথা বেকার সমস্যা
  • পাশ্চাত্য সংস্কৃতির অনুকরণ
  •  সচেতনতার অভাব;
  • অপরাধকর্মের জন্য শাস্তিহীনতা ইত্যাদি।

এসবের কারণে যুবসমাজ নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে। বাড়ছে যুবসমাজের সামাজিক অবক্ষয় বা সামাজিক অবক্ষয়। এর ফলে চুরি-ডাকাতি, হত্যা-রাহাজানি, প্রতারণা-চোরাকারবারি, লুণ্ঠন-আত্মগােপন, মাতলামি ও উচ্ছলতা, মিথ্যারােপ ও নকলবাজি বর্তমানে প্রতিদিনের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব নৈতিক অবক্ষয় তথা যুব সমাজের অবক্ষয় রােধ করতে হলে আমাদের দ্রুতগতিতে নিম্নোক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। 

ক. নৈতিক জ্ঞান তথা নীতিজ্ঞানের শিক্ষার মাধ্যমে যুবসমাজকে সুসংগঠিত করে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতে হবে। 

খ. পারিবারিক ও প্রাতিষ্ঠানিকভাবে যুবসমাজকে ধর্ম ও শিক্ষার আলাে ছড়িয়ে দিয়ে মনের অন্ধকার দূর করতে হবে। 

গ. রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের জন্য যুবসমাজকে ব্যবহার বন্ধ করতে হবে।

ঘ. কুরুচিপূর্ণ স্যাটেলাইট চ্যানেল বন্ধ করতে হবে। অথবা যুব সমাজকে দেখতে নিরুৎসাহিত করতে হবে। 

ঙ. যােগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী দ্রুত কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে বেকার সমস্যা সমাধান করতে হবে।

চ. দেশীয় সংস্কৃতির প্রতি আকৃষ্টতা বাড়াতে হবে। যাতে করে বেকার যুবসমাজ পাশ্চাত্য সংস্কৃতিকে ঘৃণা করে। 

ছ. সচেতনতাই যুব সমাজের অবক্ষয় রােধের প্রধান হাতিয়ার। তারা সচেতন হলে কোন রকম অন্যায় কুমন্ত্রণা তাদের বশীভূত করতে পারবে না। 

জ. সমাজে সংগঠিত অপরাধ কর্মের জন্য কঠোর আইন ও শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে করে যুব সমাজ কোন অপরাধ কর্মে লিপ্ত না হয়। 

এসব পদক্ষেপ সুষ্ঠুভাবে গ্রহণ করলেই যুব সমাজের নৈতিক অবক্ষয় রােধ করা সম্ভব। আর যুবকরাই দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এবং জাতির কর্ণধার।

বিনীত
“ক”
নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর।

 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Back to top button