স্বাস্থ্য কথা

নিয়মিত রসুন খেলে কি কি উপকার পাওয়া যায়

স্বাস্থ্য ভালো রাখতে রসুনের কোন বিকল্প নেই। দৈনিক খাদ্য তালিকায় রসুন রাখার অভ্যাস করুন। ছবিঃ সংগৃহীত।

4.9/5 - (10 votes)

বাঙ্গালির রোজকারের রান্নায় রসুন একটি সাধারন ব্যাপার। জেনে হোক বা না জেনেই হোক আমরা প্রতিদিনই কমবেশি রসুন খাই। আসুন জেনে নেই রসুনের উপকারিতা, পুষ্টিগুন ও স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে ।

রসুনের উপকারিতা

বাতের ব্যথা দূর করে : যারা বাতের ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন তারা ২ কোয়া রসুন বেটে গাওয়া ঘিয়ের সাথে খেতে পারেন। বাতের ব্যথা বেদন থাকবে না।

হাপানীর সমস্যা দূর করে : হাপানীর জন্য শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে খুব কষ্ট হয়, দম যেন বদ্ধ হয়ে আসার উপক্রম হয়। পাঁচ থেকে সাতটি রসুনের রস এককাপ ঠান্ডা দুধের সাথে মিশিয়ে খেতে দিন। কষ্টটা থাকবে না ।

পুরাতন জ্বরে : এ সব জ্বর বেশি বাড়ে না। ঘুসঘুসে জ্বর হয়, জ্বর কমে গেলেও পুরোপুরি ছেড়ে যায় না। এ সব অবস্থা দেখা দিলে ১ চা-চামচ গাওয়া গিয়ে নিয়ে তাতে পাঁচ থেকে সাত ফোটা রসুনের রস মিশিয়ে কয়েকদিন খেতে দিন। জ্বর একবারে ছেড়ে যাবে আর আসবে না ইনশাআল্লাহ।

শরীর ক্ষয়প্রাপ্ত হতে থাকলে : খাবার অসুবিধা নেই, ঠিকমত খাওয়া ও বিশ্রাম করা সত্তেও গায়ে মাংস লাগছে না, ওজন কমে যাচ্ছে। এ অবস্থায় ২ কোয়া রসুন বেটে একপোয়া গরম দুধের সাথে মিশিয়ে নিন। এবার রসুন বাটা মিশানো দুধ খান। কিছুদিনের মধ্যেই উপকার পাবেন।

যৌবন স্থায়ী রাখতে : পুরুষ বা নারী যদি যৌবন স্থায়ী রাখতে চান, তাহলে এক চামচ থেকে দু’চামচ আমলকীর কাচা রস নিয়ে, তার সাথে এক কোয়া বা দু’কোয়া রসুন-বাটা মিশিয়ে খাবেন। যৌবন দীর্ঘস্থায়ী হবে।

মাথা ধরায় : অনেক সময় সর্দি না হলেও বায়ু প্রকুপিত হয়ে অনেক সময় মাথা ধরে, এ অবস্থায় কয়েকদিন ২ ফোটা করে রসুনের নস্য নিন। মাথা ধরায় উপকার পাবেন।

শুক্রতারল্যে : অনেক কারণেই শুক্রতারল্য দেখা দিতে পারে। এ সমস্যা দেখা দিলে, সামান্য গরম দুধের সাথে ১ কোয়া বা ২ কোয়া রসুন বাটা মিশিয়ে খাবেন। তার ফলে অস্থিতে শক্তি সঞ্চর হবে। শরীরের ক্ষয় বন্ধ হবে ও শুক্রতারল্য থাকবে না।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Health Desk

সিনিয়র স্টাফ। স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা সমস্যা ও হেলথ টিপস নিয়ে নিয়মিত লিখছি। স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল।

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button