স্বাস্থ্য কথা

একই সাবান সবাই ব্যবহার করছেন? মারাত্মক ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন

একই সাবান পরিবারের সবাই মিলে ব্যবহার করছেন। হয়তো এর ফলে বিপদ ডেকে আনছেন। কেন জানেন?

3/5 - (2 votes)

বাড়িতে সবাই আলাদা আলাদা দাঁত মাজার ব্রাশ ব্যবহার করেন। সবার স্নানের তোয়ালে, চিরুনিও আলাদাই হয়। কিন্তু স্নানের সাবান? সেটা একটি। কিন্তু এটি কি ঠিক কাজ? এতে কি কারও ক্ষতি হতে পারে? জেনে নিন কী বলছে বিজ্ঞান।

হিন্দুস্তান টাইমস এ একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, ২০০৬ সালে ‘ইন্ডিয়ান জার্নাল অব ডেন্টাল রিসার্চ’-এর গবেষণায় এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হয়। সেখানে বলা হয়েছিল, সাবানের উপরের স্তরে কম পক্ষে পাঁচ রকম জীবাণুর অস্তিত্ব থাকতে পারে। তার মধ্যে যেমন ব্যাকটিরিয়া আছে, তেমনই আছে কিছু মারাত্মক ভাইরাসও।

২০১৫ সালে একই বিষয় নিয়ে একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয় ‘আমেরিকান জার্নাল অব ইনফেকশন কন্ট্রোল’-এ। সেখান থেকে জানা যায়, ৬২ শতাংশ বার সাবানে নানা ধরনের রোগজীবাণু রয়েছে। এই সংক্রমিত সাবান ব্যবহার করলে যাঁদের শরীরে কোনও সংক্রমণ নেই, তাঁরাও অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

মজার কথা, এই সাবানই আবার রোগজীবাণু ছড়ানো আটকায়। এতে যে ফ্যাট থাকে, তা জীবাণু ধুয়ে ফেলতে সাহায্য করে। তাহলে মোদ্দা বিষয়টি কী দাঁড়ালো? একই সাবান পরিবারের সকলে ব্যবহার করতে পারেন কি?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাবানে যতটা সমস্যা, তার চেয়ে বেশি সমস্যা বার সাবান রাখার পাত্রে জমা জলে। সেই জল হল নানা ধরনের জীবাণুর বাসা। ফলে সেখান থেকেই বেশি মাত্রায় জীবাণু ছড়িয়ে পড়ে। তাহলে করণীয় কী?

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই সাবানের নীচে জমা জল থেকে যে কেউ সংক্রমিত হতে পারেন। এই সমস্যা এড়াতে বার সাবানের বদলে তরল সাবান ব্যবহার করা যেতে পারে। একান্তই বার সাবান ব্যবহার করতে হলে, ভেজা বার সাবান রাখার জায়গাটি শুকিয়ে রাখতে হবে।

তবে বাড়িতে কেই ইতিমধ্যেই কঠিন অসুখে ভুগলে, বা বাড়ির বয়স্কদের এবং ছোট সদস্যদের বাকিদের সঙ্গে এখ সাবান ব্যবহার না করাই ভালো। এই বিষয়ের পরামর্শই দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Health Desk

সিনিয়র স্টাফ। স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা সমস্যা ও হেলথ টিপস নিয়ে নিয়মিত লিখছি। স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল।

Related Articles

Back to top button