Uncategorized

Class Six 6th Week | Home Science Assignment 2021 | গার্হস্ত্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১

Rate this post
Class Six 6th Week | Home Science Assignment 2021 | গার্হস্ত্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ 

Class Six 6th Week | Home Science Assignment 2021 | গার্হস্ত্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১


প্রিয় ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা, তোমরা ইতোমধ্যেই ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট হাতে পেয়েছো। আজ ষষ্ঠ শ্রেণীর ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর গার্হস্ত্য বিজ্ঞান এর নির্ধারিত কাজ এবং নমুনা উত্তর নিয়ে হাজির হয়েছি। সর্বপ্রথমে চলো দেখে নেয়া যাক গার্হস্ত্য বিজ্ঞান ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টএ কি কি থাকছে। তোমাদের গার্হস্ত্য বিজ্ঞান পাঠ্য বইয়ের চতুর্থ অধ্যায় পরিবার ও শিশু  থেকে নির্ধারিত কাজ দেওয়া হয়েছে।

নির্ধারিত কাজ

Class Six 6th Week | Home Science Assignment 2021 | গার্হস্ত্য বিজ্ঞান অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১

শিশুর বয়সের উপর ভিত্তি করে শিশুকালের বিভিন্ন নামকরণ করা হয়েছে। নিন্মক্ত ছকে নাম অনুযায়ী বয়সসীমা এবং তাদের বৈশিষ্ট্য লিখ।

তুমি কী সব বয়সের শিশুর সাথে একই ধরনের আচরণ করবে? যুক্তি দিয়ে বোঝাও।

নমুনা উত্তর

শিশুকালের নাম
বয়স সীমা
বৈশিষ্ট্য
নবজাতক কাল
জন্ম মুহূর্ত থেকে ২ সপ্তাহ
  • প্রথম ভাষা হলো কান্না ফুসফুস সক্রিয় হয়
  • হঠাৎ শব্দ হলে চমকে ওঠে 
  • দৈনিক ১৮ থেকে ২০ ঘন্টা ঘুমায় 
  • ঠোঁটের কাছে আঙ্গুল রাখলে চুষে খেতে চায়। 
  • হাতের তালুতে কিছু রাখলে তা শক্ত করে চেপে ধরে।
অতি শৈশব কাল
২ সপ্তাহ থেকে ২ বছর পর্যন্ত
  • হাঁটতে শিখে 
  • এই বয়সে শিশুদের বিকাশ দ্রুত হয় 
  • কথা বলতে শিখে
প্রারম্ভিক কাল
২ বছর থেকে ৬ বছর পর্যন্ত
  • এ বয়সের অন্য একটি নাম হল হলো প্রাক বিদ্যালয় শিশু
  • শিশুরা খেলাধুলা ও আনুষ্ঠানিক পড়াশোনার প্রস্তুতি নেয়
  • মনে অনেক প্রশ্ন ও কৌতূহলে জাগে 
  • বুদ্ধির বিকাশ ঘটে 
  • ধমক দিয়ে থামিয়ে রাখা কঠিন
মধ্য শৈশব
৬ বছর থেকে ১০/১১ বছর পর্যন্ত
  • শারীরিক বিকাশ ধীর গতিতে চলে 
  • সামাজিক জীবনে পরিবর্তন আসে 
  • সমবয়সীদের সাথে বন্ধুত্ব সৃষ্টি হয় 
  • পরিবারে কাজে সাহায্য করে উদ্যমী ও পরিশ্রমী হয় 
  • বিভিন্ন সৃজনশীল কাজ আকৃষ্ট হয়। যেমনঃ ছবি আঁকা, গল্প-কবিতা, সাতার কাটা, সাইকেল চালানো 
  • আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে
তুমি কি সব বয়সের শিশুর সাথে একই ধরণের আচরণ করবে? যুক্তি দিয়ে বোঝাও।
বয়সভেদে শিশুদের আচরণের তারতম্য রয়েছে। তাই সব শিশুদের সাথে একই আচরণ ন্যায় সঙ্গত নয়। নবজাতক শিশুকে বিশেষ যত্নে রাখতে হয়।  দুই বছর বয়সে শিশুরা হাঁটতে শিখে তাই এই সময় তাদের দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হয় যাতে পড়ে গিয়ে ব্যথা না পায়। ভয় পেলে কোলে তুলে নিতে হবে।  ক্ষুদা পেলে খাবার দিতে হবে। কান্না করলে কোলে তুলে আদর করতে হবে। মল-মূত্র ত্যাগ করলে সাথে সাথে তা পরিষ্কার করতে হবে। স্কুলে পড়ুয়া শিশুরা সামাজিক পরিবেশের সাথে নিজেকে যুক্ত করতে শুরু করে তাই তাদের প্রতি যত্নবান হওয়া উচিত। তাদেরকে পড়াশোনায় উৎসাহিত করতে হবে, সুন্দরভাবে কথা বলতে হবে, তারা যা বলে তা মনোযোগ দিয়ে শুনতে হবে, তাদের কোন কাজে বা প্রশ্নে বিরক্ত হওয়া যাবে না।   মধ্য শৈশব অর্থাৎ ৬ থেকে ১২ বছর শিশুদের শারীরিক বিকাশ ধীর গতিতে হয়। তাই এই সময় শিশুদের প্রয়োজন হয় বাড়তি যত্নের।  এই বয়সে শিশুদের শারীরিক বিকাশ গঠনে খেলাধুলায় বাধা দেওয়া উচিত নয়। তাদেরকে ভালো কাজের জন্য উৎসাহিত করতে হবে। কোন কাজে সাফল্য না পেলে নিরুৎসাহিত না করে বরং কীভাবে কাজে সফলতা অর্জন করতে হয় তা বুঝিয়ে দেয়া। মধ্য শৈশব বয়সটি শিশুদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কারণ এই বয়সেই ছক বাধা জীবনে একটি পরিবর্তন শুরু হয়। এই বয়সে একজন শিশু পরিবারের বন্ধন ছাড়াও  বন্ধুত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়। তাই শিশুদেরকে ভালো বন্ধু গঠনে পরামর্শ দিতে হবে। শিশুদের মাঝে হতাশা আসলে ভালো আচরণের মাধ্যমে তাদের মাঝে নিরাপত্তাবোধ জাগিয়ে তুলতে হবে। শিশুদের ভালো কাজের জন্য প্রশংসা করতে হবে। আজকের শিশুরাই আগামীর ভবিষৎ। তাই শিশুদের ভবিষৎকে সুন্দর ও সুচারুরূপে গড়ে তুলতে তাদের সাথে নেতিবাচক উক্তি ছুড়ে না দিয়ে বরং ইতিবাচক উক্তি দিয়ে তাদেরকে আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তোলাই হবে আমাদের প্রধান লক্ষ্য।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Back to top button