ইসলাম ও জীবনকুরআন

সূরা আত-ত্বীন (At-Tin) বাংলা অনুবাদ – উচ্চারণ – অর্থ ও ফযিলত

4.8/5 - (64 votes)
সূরা আত-ত্বীন (At-Tin) পবিত্র কুরআন শরীফের ৯৫ তম সূরা। আয়াত সংখ্যা ৮। সূরাটি মক্কায় অবতীর্ণ হয় এবং সূরাটি মাক্কী সূরার অন্তর্ভুক্ত। ত্বীন শব্দের অর্থ হল “ডুমুর” . এই সূরাটিতে আল্লাহ এক বিশেষ পুরুস্কারের কথা বলেছে যা শুধু বিশ্বাসী এবং সৎকর্মকারীরা লাভ করবে। এবং আল্লাহর প্রতি ঈমান ও সৎকর্মশীল হওয়ার উপর এ  সূরাতে গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে।
← পূর্ববর্তী সূরা সূরা আল-ইনশিরাহ পরবর্তী সূরা → সূরা আলাক্ব 

সূরা আত-ত্বীন (At-Tin) বাংলা অনুবাদ – উচ্চারণ

بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ
শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।
(১
وَالتِّينِ وَالزَّيْتُونِ
উচ্চারণঃ ওয়াততীন ওয়াঝঝাইতূন।
অর্থঃ শপথ আঞ্জীর (ডুমুর) ও যয়তুনের,
(২
وَطُورِ سِينِينَ
উচ্চারণঃ ওয়া তূরি ছীনীন।
অর্থঃ এবং সিনাই প্রান্তরস্থ তূর পর্বতের,
(৩
وَهَذَا الْبَلَدِ الْأَمِينِ
উচ্চারণঃ ওয়া হা-যাল বালাদিল আমীন।
অর্থঃ এবং এই নিরাপদ নগরীর।
(৪
لَقَدْ خَلَقْنَا الْإِنسَانَ فِي أَحْسَنِ تَقْوِيمٍ
উচ্চারণঃ লাক্বদ খলাকনাল ইং-ছা-না ফী-আহছানি তাক্বয়্যুইম।
অর্থঃ আমি সৃষ্টি করেছি মানুষকে সুন্দরতর অবয়বে।
(৫
ثُمَّ رَدَدْنَاهُ أَسْفَلَ سَافِلِينَ
উচ্চারণঃ ছু ম্মা রাদাদ না-হু আছফালা ছা-ফিলীন।
Tঅর্থঃ অতঃপর তাকে ফিরিয়ে দিয়েছি নীচ থেকে নীচে।
(৬
إِلَّا الَّذِينَ آمَنُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ فَلَهُمْ أَجْرٌ غَيْرُ مَمْنُونٍ
উচ্চারণঃ ইল্লাল্লাযীনা আ-মানূওয়া’আমিলুসসা-লিহা-তি ফালাহুম আজরুন গাইরু মামনূন।
অর্থঃ কিন্তু যারা বিশ্বাস স্থাপন করেছে ও সৎকর্ম করেছে, তাদের জন্যে রয়েছে অশেষ পুরস্কার।
(৭
فَمَا يُكَذِّبُكَ بَعْدُ بِالدِّينِ
উচ্চারণঃ ফামা-ইউকাযযি বুকা বা‘দুবিদ্দীন।
অর্থঃ অতঃপর কেন তুমি অবিশ্বাস করছ কেয়ামতকে?
(8
أَلَيْسَ اللَّهُ بِأَحْكَمِ الْحَاكِمِينَ
উচ্চারণঃ আলাইছাল্লা-হু বিআহকামিল হা-কিমীন।
অর্থঃ আল্লাহ কি বিচারকদের মধ্যে শ্রেষ্টতম বিচারক নন?

সূরা আত-ত্বীন তেলাওয়াত / অডিও

সূরা আত-ত্বীন ফযিলত

  1. সূরা আত-ত্বীন ১০০ বার পাঠ করলে আল্লাহর বরকতে নিখোঁজ জিনিস ফিরে পাওয়া যায়।
  2. যদি কেউ তার শত্রু সাথে বন্ধুত্ব স্থাপন করতে চায় তাহলে সে যেন এশার নামাযের পর টানা ২১ দিন সূরা আত-ত্বীন ৪১ বার তেলাওয়াত করে। ইনশাআল্লাহ তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব তৈরী হবে।

এছাড়া সূরাতে উল্লেখিত দুটি ফল ডুমুর এবং জলপাইয়ের অনেক পুষ্টিগুণ রয়েছে :

  • ডুমুর জান্নাতী ফল।
  • ডুমুর ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যে খুবই উপকারী।
  • যেসব মেয়েদের মাসিক অনিয়মিত হয় তাহলে ডুমুর ফলের সিদ্ধ করা পানি পান করলে মাসিক নিয়মিত হবে ইনশাআল্লাহ।
  • ৭টি জলপাই এবং ৩টি ডুমুর যদি আপনি নিয়মিত খান তাহলে আপনার বার্ধক্য রোধ হবে।
  • বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) আমাদেরকে জলপাইনের তেল ব্যবহার করার আদেশ  দিয়েছেন এবং তিনি নিজেও তা ব্যবহার করতেন।
  • জলপাইয়ের তেল নিয়মিত চুল এবং দাড়িতে লাগালে চুল সহজে পাকে না।
আশা করি লিখাটি আপনাদের ভালো লেগেছে। ভালো লাগলে লিখাটি শেয়ার করবেন এবং আপনাদের মূল্যবান মতামত আমাকে জানাবেন। আল্লাহপাক আমাদের ভালো রাখুন সুস্থ রাখুন এবং ইসলামের পথে চলার তৌফিক দেন করুন। আমিন।

 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button