টিউটোরিয়াল

ব্লগিং কি? কীভাবে ব্লগ থেকে ইনকাম করা যায় [ বিস্তারিত জানুন ]

4.8/5 - (5 votes)

বর্তমান সময়ে ব্লগিং বেশ জনপ্রিয়। কারণ ব্লগিং করে অনলাইন থেকে প্রচুর পরিমাণ অর্থ ইনকাম করা যায়। কিন্তু তাই বলে কি সবাই ব্লগিং করে অর্থ উপার্জন করতে পারে? উত্তর হল না। তাই বলে নিরাশ হওয়ার কিছু নেই। আজকে ব্লগিং এবং কোন কোন উপায়ে ব্লগ থেকে ইনকাম করা যায় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

 

ব্লগিং করে কি কি উপায়ে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার যায়
ব্লগিং কি? ব্লগিং করে সত্যিই কি ইনকাম করা যায়? ছবিঃ ইন্টারনেট

ব্লগিং কি (What is Blogging)?

“ব্লগিং (Blogging)” শব্দটির মানে হচ্ছে বাক স্বাধীনতা। ব্লগিং হল এমন একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম যেখানে যেকোন কিছু লিখা যায় এবং যা অনলাইনে প্রকাশ করার মাধ্যমে পৃথিবীর যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ চাইলে সেই লিখা পড়তে পারে। যারা ব্লগিং করেন তাঁদের বলা হয় “ব্লগার (Blogger)”। বর্তমানে অনেকেই ট্রাভেলিং, ফটোগ্রাফি, টিউটোরিয়াল বিষয়ে ব্লগিং করে অনলাইন থেকে ইনকাম করে থাকেন।

ব্লগ কি (What is Blog)?

“ব্লগ (Blog)” শব্দটি সংক্ষিপ্ত রুপ “ওয়েব্লগ (Weblog)” থেকে এসেছে। এই ওয়েব্লগ পূর্বে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের দৈনন্দিন রুটিনের বিবরণ এন্ট্রি দেওয়ার জন্য “লগ” এর সুবিধা দিয়ে থাকতো। পরবর্তীতে এতে মন্তব্য করার সুযোগ করে দেওয়া হয়।  এবং ধীরে ধীরে ব্লগ জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়। 

কীভাবে ব্লগিং শুরু করবেন (How to Start Blogging)?

বর্তমান সময়ে ব্লগিং বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। অনেকেই ব্লগিং করে ইনকাম করতে চান কিন্তু কীভাবে ব্লগিং করবেন তা সঠিকভাবে জানেন না। অনেকে আবার অল্প কিছু জ্ঞান নিয়েই হুট করে ব্লগিং শুরু করে দেন এবং পরবর্তীতে তেমন ইনকাম করতে না পেরে হতাশ হয়ে ব্লগিং করা ছেড়ে দেন। তাই কীভাবে ব্লগিং করে সফলতা আসবে তা জানা জরুরি। 

বিষয়বস্তু নির্বাচন করা (Choosing a Blog Niches)

ব্লগিং শুরু করার পূর্বেই বিষয়বস্তু নির্বাচন করুন। অর্থাৎ আপনি কি বিষয় (Niche) নিয়ে ব্লগ করবেন তা নির্বাচন করবেন। আমার দীর্ঘ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, অধিকাংশ ব্লগার না জেনে বুঝে কোন একটি বিষয় নিয়ে ব্লগিং শুরু করে দেয়। পরবর্তীতে সফলতা না পেয়ে ব্লগিং ছেড়ে দেন। তাই আমি বিষয়বস্তু নির্বাচন কে বেশি গুরুত্ব দেই। কারণ শুরুটা যদি ভালো হয় তাহলে আপনি ব্লগিং করে সফলতা পাবেন। 

এখন প্রুশ্ন হল কোন বিষয় নিয়ে লিখবো? উত্তর হল বিষয় নির্বাচন করবেন নিজেকে বিচার করে। আপনি যে বিষয় নিয়ে সবচেয়ে ভালো জানেন বা জ্ঞান রাখেন সে বিষয় নিয়ে ব্লগ লিখুন। আমি অনেক ভিডিও-টিউটোরিয়ালে দেখেছি যেখানে বিষয়বস্তু নির্বাচনে নিজের মেধাকে যাচাই না করে বরং সার্চ ভলিউমকে প্রাধান্য দিতে। এটা একটি ভুল পদক্ষেপ। তাই আমি বলব যে বিষয় নিয়ে জানেন সে বিষয় নিয়ে লিখুন।

ডোমেইন ও হোস্টিং (Domain & Hosting)

ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর জন্য দুইটি জিনিস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একটি হল ডোমেইন অন্যটি হলো হোস্টিং। ডোমেইন হল আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর নাম যা যে কেউ ব্রাউজারে নামটি টাইপ করে আপনার ব্লগে ঢুকতে পারে। আর হোস্টিং হল অনেকটা হার্ডডিস্ক এর মতো। আপনি যেমন আপনার ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এ ফাইল সেভ করেন ঠিক তেমনভাবেই আপনার ওয়েবসাইটের ফাইল একটি অনলাইন সার্ভার এ সেভ রাখতে হয়। এটি হল হোস্টিং। 

ব্লগিং প্লাটফর্ম নির্বাচন (Choosing a Blogging Platform)

ব্লগিং প্লাটফর্ম একটি উন্মুক্ত মাধ্যম যার সাহায্যে আপনি পোস্ট পাবলিশ করা, মডিফাই করা, ডিলিট করা, মন্তব্য করা এইসকল কাজ করতে পারেন। সোজা কথা এটি হল কনটেন্ট মেনেজমেন্ট সিস্টেম। বর্তমানে বেশ কয়েকটি  ব্লগিং প্লাটফর্ম রয়েছে। সবগুলোই ফ্রি। তবে আমি দুইটি ব্লগিং প্লাটফর্ম এর নাম আপনাদের সাজেস্ট করব। একটি হল ওয়ার্ডপ্রেস (WordPress) অন্যটি হল ব্লগার (Blogger.com). ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্য আপনাকে অবশ্যই  ডোমেইন ও হোস্টিং কিনতে হবে। কিন্তু ব্লগার এর জন্য ডোমেইন ও হোস্টিং কিনতে হয় না। ব্লগার সম্পূর্ণ ফ্রি।  তবে আপনি চাইলে কাস্টম ডোমেইন কিনে তা ব্লগার এ যুক্ত করতে পারেন। 

কনটেন্ট লিখা (Content Writing)

বলা হয়ে থাকে কনটেন্ট ইস দ্যা কি। ডোমেইন হোস্টিং শেষ করার পর সাইটে কন্টেন্ট লিখে তা পাবলিশড করতে হয়। মূলত ব্লগিং এর এটাই মূল অংশ। যারা নতুন ব্লগ করছেন তাদের কাছে আমার পরামর্শ হল দিনে কমপক্ষে দুইটি করে আর্টিকেল লিখার জন্য। 

আর্টিকেল অবশ্যই  SEO Friendly হতে হবে। যদি SEO Friendly Article কীভাবে  লিখতে হয় জানতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটি দেখতে পারেন।

ব্লগ থেকে ইনকাম করার উপায়

অনলাইন থেকে ইনকাম করার সহজ ও কার্যকরী মাধ্যম হল ব্লগিং করা। ব্লগিং করে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করার নজির নেট দুনিয়ায় অনেক আছে। চলুন তাহলে কী কী উপায়ে ব্লগ থেকে ইনকাম করা যায় তা জেনে নেই। 

গুগল এডসেন্স (Google AdSense)

ব্লগ থেকে ইনকাম করার জনপ্রিয় মাধ্যম হল গুগল এডসেন্স (Google AdSense). বেশিরভাগ ব্লগার গুগল এডসেন্স ব্যবহার করে থাকে। আপনার ব্লগে যদি ভালো ভিসিটর থাকে তাহলে আপনি গুগল এডসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারেন। গুগল আপনাকে এপ্রোভাল দিলে গুগল এডসেন্স আপনার ব্লগে ব্যবহার করে ইনকাম করতে পারবেন। 

গুগল এডসেন্স কি এ নিয়ে ছোট করে একটু বলি। গুগল এডসেন্স  আপনার প্রকাশিত পোস্ট এর সাথে মিল রেখে বিভিন্ন ধরণের বিজ্ঞাপন আপনার ব্লগে দেখিয়ে থাকে। কেউ যদি সেই বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে তাহলে আপনি কিছু অর্থ পাবেন। এডসেন্স Cost Per Click (CPC) ভিত্তিতে আপনাকে ইনকাম দিবে। সুতরাং আপনার ব্লগে যত বেশি ভিসিটর আসবে ততবেশি অ্যাড ক্লিক হবে। ইনকাম বেশি হবে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing)

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করা যায়।  এটি বেশ জনপ্রিয়।  বিশেষ করে  ইংরেজি ভাষাভাষীদের কাছে এফিলিয়েট মার্কেটিং বড় একটি স্থান দখল করে আছে।  অন্যের পণ্য অনলাইনে বিক্রি করার মাধ্যমে অর্জিত কমিশনই হল এফিলিয়েট মার্কেটিং

উদাহরণস্বরূপ, ধরুন আপনার একটি টেক সাইট রয়েছে। আপনি চিন্তা করলেন টেকনোলজি রিলেটেট পণ্য এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে অনলাইনে বিক্রি করে আয় করবেন। তাই আপনি Amazon এর এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে পণ্যের লিঙ্ক আপনার সাইটে লাগিয়ে দিলেন। এখন কেউ যদি ঐ লিংকে ক্লিক করে যেকোন পণ্য কিনলেই আপনি কিছু কমিশন পেয়ে যাবেন। যারা এফিলিয়েট মার্কেটিং এ দক্ষ তারা প্রতিমাসে ভালো অংকের টাকা ইনকাম করে থাকেন। বাংলাদেশেও এফিলিয়েট মার্কেটিং এর জনপ্রিয়তা রয়েছে। 

ই-বুক বিক্রি করে (By Selling E-book)

আপনি যদি কোন বিষয়ে দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে সে বিষয়ে ব্লগ করার পাশাপাশি ই-বুক বিক্রির মাধ্যমে ইনকাম করতে পারেন। ধরুন আপনি SEO বিষয়ে দক্ষ। আপনার ভিজিটরদের জন্য SEO সম্পর্কে  একটি ই-বুক কোর্স করাতে পারেন। আবার সেই ই-বুক আবার অন্যদের কাছে বিক্রিও করতে পারেন। 

গেস্ট পোস্ট (Guest Post)

ব্লগ থেকে ইনকাম করার ভালো একটি উপায় হলো পেইড গেস্ট পোস্ট। গেস্ট পোস্ট মানে হল অন্য  ব্লগাররা আপনার ব্লগের জন্য আর্টিকেল লিখে সেখানে তাঁদের ব্লগের দুই বা একটি লিঙ্ক (URL Address)  দিয়ে দেয়। 

আপনি যদি চান তাহলে পেইড গেস্ট পোস্ট অফার করে মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারেন। প্রশ্ন হলো অন্য কেউ কেন আপনার জন্য কষ্ট করে পোস্ট লিখবে আবার টাকাও দিবে? আসলে যিনি পোস্ট লিখছেন তারও লাভ আছে। 

গেস্ট পোস্ট এর মাধ্যমে তিনি একটি ব্যাকলিংক (Backlink) পেয়ে গেলেন। এই ব্যাকলিংক তার সাইটের SEO এর জন্য কাজে আসে। গুগল ব্যাকলিংক পছন্দ করে এবং যেসব সাইটের Quality ব্যাকলিংক বেশি সেসব সাইটের সার্চ রাঙ্কিং বেশি হয়। 

সুতরাং পেইড গেস্ট পোস্ট অফার করে  আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারেন। 

ডোমেইন ও হোস্টিং এফিলিয়েট মার্কেটিং

পূর্বেই উল্ল্যেখ করেছি ব্লগ করার জন্য  ডোমেইন ও হোস্টিং এর প্রয়োজন। যারা ডোমেইন ও হোস্টিং সার্ভিস দিয়ে থাকেন তারা এফিলিয়েট মার্কেটিং এর অফার দিয়ে থাকেন। আপনি চাইলে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে তাদের সার্ভিস সেল করার মাধ্যমে কমিশন আর্ন করতে পারেন। 

৬০০ মিলিয়নের বেশি ব্লগ রয়েছে। ভেবে দেখুন শুধু ডোমেইন ও হোস্টিং এফিলিয়েট মার্কেটিং করে কি পরিমান ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে। 

থার্ড পার্টি অ্যাড নেটওয়ার্ক (Third Party Ad Network)

শুধু যে গুগল অ্যাডসেন্স থেকেই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ইনকাম করা যায় এমনটা নয়। অ্যাডসেন্স ছাড়াও কিছু থার্ড পার্টি অ্যাড নেটওয়ার্ক রয়েছে যারা CPC এবং CPM ভালো দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে অ্যাডসেন্স এর পাশাপাশি পার্টি অ্যাড নেটওয়ার্ক একসাথে নিজের সাইটে ব্যাবহার করতে পারেন। 

তাছাড়া, Google certified কিছু অ্যাড নেটওয়ার্ক রয়েছে যেগুলোর সাহায্যে আপনি অ্যাডসেন্স আর্নিং বুস্ট করতে পারেন। নিচে কিছু থার্ড পার্টি অ্যাড নেটওয়ার্ক এর নাম দেওয়া হলঃ

  • Google Ad Manager
  • Ezoic
  • PropellerAds
  • Infolinks
  • adpushup
  • Adcash
  • Adsterra
  • Media.net
  • RevenueHits
  • AdBlade
  • BidVertiser

পেইড প্রমোশনাল অফার (Paid Promotional Offer )

আপনি  অ্যাড নেটওয়ার্ক ছাড়াও বিজ্ঞাপন দেখিয়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারেন। ভাবছেন এটা কিভাবে সম্ভব? জি পেইড প্রমোশনাল অফার এর মাধ্যমে আপনি এটি করতে পারবেন। অনেক কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সেল করার জন্য সরাসরি আপনার সাথে যোগাযোগ করে বিজ্ঞাপনের অফার দিয়ে থাকে। এবং এর বিনিময়ে আপনাকে অর্থ দিয়ে থাকে। এটি হল পেইড প্রমোশনাল অফার।

আপনার সাইট যদি ভালো ভিসিটর পেয়ে থাকে এবং ভালো কন্টেন্ট আপনি লিখে থাকেন তাহলে পেইড প্রমোশনাল অফার পাওয়া আপনার জন্য অনেকটাই সহজ হবে। 

পেইড রিভিউ (Paid Review)

অনেক ব্লগ সাইট রয়েছে যারা পেইড রিভিউ করে প্রচুর ইনকাম করছে। 

এখন প্রশ্ন হল, পেইড রিভিউ কি? ধরুন আপনি মোবাইল রিলেটেড টপিক নিয়ে ব্লগ করেন। এবং সেখানে অনেক মোবাইল নিয়ে আপনি রিভিউ করে থাকেন। যারা মোবাইল বিক্রি করে থাকেন তারা আপনাকে টাকা অফার করে একটি ভালো রিভিউ দেওয়ার জন্য। 

শুধু ব্লগ নয় আজকাল ইউটিউব এর মাধ্যমেও বেশি পেইড রিভিউ হচ্ছে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন ব্লগ থেকে ইনকাম করার ভালো একটি উপায় হতে পারে পেইড রিভিউ।

শেষ কথা

আসলে ব্লগ থেকে ইনকাম করার জন্য কম  করে হলেও ৩০ এর অধিক উপায় রয়েছে। যতই দিন যাচ্ছে অনলাইন জগৎ ততই সমৃদ্ধ হচ্ছে। পূর্বের তুলনায় বর্তমানে ব্লগার এর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।  সেই সাথে বাড়ছে অনলাইনে ব্যবসায়ের পরিধি। যারা ব্লগ করে ইনকাম করার জন্য ভাবছেন তাদের জন্য আজকের পোস্টটি উপকারে আসবে।

অনেকে ব্লগিং কে নিজের পেশা হিসেবে নিয়েছেন। ইনকাম করছেন লক্ষ লক্ষ টাকা। অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য শুরুর দিকে আপনাকে অনেক পরিশ্রম করতে হবে। ভালো কন্টেন্ট ও SEO করা জানতে হবে।   

আপনাদের জিজ্ঞাসা

  • [accordion]
    • ব্লগ করা কি খুব কঠিন?
      • ব্লগ করা তেমন কঠিন নয়। তবে ব্লগিং করার পূর্বে নিজেকে প্রস্তুত করে নেওয়া ভালো। অনেকেই আছেন সময়ের অভাবে ব্লগ করতে পারেন না। তাই আমি বলবো আপনার যদি সময় না থাকে তাহলে ব্লগ না করাই ভালো।
    • ব্লগ করে কি সত্যি টাকা ইনকাম করা যায়?
      • জি অবশ্যই। অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য ব্লগিং বেশ জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। কিন্তু হুট করে ইনকাম করা সম্ভব নয়। নিয়মিত পোস্ট এবং ভালো ভিসিটর আসলে আপনিও ব্লগ করে ইনকাম করতে পারেন।
    • ব্লগার.কম নাকি ওয়ার্ডপ্রেস কোনটা ভালো?
      • ব্লগিং করার জন্য দুটোই ভালো। তবে আমি আপনাদের পরামর্শ দিবো শুরুতে ব্লগার.কম দিয়ে ব্লগিং করতে। কারণ ব্লগার.কম সম্পূর্ণ ফ্রী। অন্যদিকে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ব্লগিং করার জন্য আপনাকে ডোমেইন ও হোস্টিং দুটোই কিনতে হবে। 
    • Blogspot.com দিয়ে কি অ্যাডসেন্স পাওয়া সম্ভব?
      • হ্যা , Blogspot.com অ্যাডসেন্স পাওয়া সম্ভব। আমি আমার ব্লগিং কেরিয়ার শুরু করেছি Blogspot.com দিয়ে এবং আমি অ্যাডসেন্স দিয়ে মাসে ভালো ইনকামও করেছি।
    • ডোমেইন কিনতে কেমন খরচ হয়?
      • আসলে ডোমেইন কিনতে তেমন খরচ নেই। আমি বাংলাদেশের একটি কোম্পানি থেকে মাত্র ১০০০ টাকা দিয়ে ডোমেইন কিনেছি। আর ডোমেইন একবছর পর পর রিনিউ করতে হয়। 


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button