Tutorial
Trending

ব্যাকলিংক কী? কীভাবে ডু-ফলো ব্যাকলিংক করবেন | Backlinks

4.7/5 - (16 votes)

ব্যাকলিংক  কী? কীভাবে ডু-ফলো ব্যাকলিংক করবেন: আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটের সার্চ ইঞ্জিন র‌্যাঙ্কিং উন্নত করতে চান, তাহলে আপনাকে Backlinks তৈরিতে ফোকাস করতে হবে। ব্যাকলিংক (Backlinks) হল অন্যান্য ওয়েবসাইটের লিঙ্ক যা আপনার ওয়েবসাইটে নির্দেশ করে। আপনার যত বেশি ব্যাকলিংক থাকবে, আপনার ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিন ফলাফল পৃষ্ঠাগুলিতে (SERPs) টপ রেঙ্কিং পাবে।

ব্যাকলিংক যেমন ভালো তেমনই সবধরণের Backlinks ভালো নয়। কিছু ভুলে আপনি আপনার সাইটের রেঙ্ক হারাতে পারেন। এখানে ব্যাকলিংকের খুঁটিনাটি সবকিছু নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

ডু-ফলো ব্যাকলিংক Backlinks

ব্যাকলিংক (Backlinks) হল একটি লিঙ্ক যা এক ওয়েবসাইট থেকে অন্য ওয়েবসাইটকে নির্দেশ করে। আপনার যদি গাড়ি সম্পর্কে একটি ওয়েবসাইট থাকে এবং আপনি ইন্সুরেন্স সম্পর্কে একটি ওয়েবসাইটে লিঙ্ক করেন তবে এটি একটি Backlinks। এটি সার্চ ইঞ্জিনগুলিকে বুঝতে সাহায্য করে যে কোন ওয়েবসাইটগুলি গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রাসঙ্গিক৷

ব্যাকলিংক কি

ধরুন আমি আমার ব্লগে আপনার ব্লগের লিংক দিলাম। সেক্ষেত্রে আপনি আমার কাছ থেকে একটি ব্যাকলিংক পেয়ে গেলেন। আর আপনি যদি আমার ব্লগ লিংক আপনার ব্লগে দেন তাহলে আমি আপনার কাছ থেকে একটি Backlinks পেলাম।

নোট: যদি একটি লিংক একই ওয়েবসাইটে অন্যটির সাথে লিংক করে তবে এটি একটি ইন্টারনাল  Backlinks হিসাবে বিবেচিত  হবে।  

ব্যাকলিংক কেনো গুরুত্বপূর্ণ?

সত্যি কথা বলতে আমরা অন পেজ এসইও তে যতটা গুরুত্ব দেই ততটা গুরুত্ব ব্যাকলিংক- এ দেই না। এর কারণ হল আমরা ব্যাকলিংক এর গুরুত্ব সঠিক জানিনা।

রেঙ্কিং

আপনি জানেন কি ব্যাকলিংক সাইটের রেঙ্ক বাড়াতে কতোটা ভূমিকা রাখে? এটি রেঙ্কিং ফেক্টর হিসেবে কাজ করে। গুগলসহ অন্যান সার্চ ইঞ্জিনগুলো মনে করে যেসকল সাইটের ব্যাকলিংক বেশি সেসব সাইটের গুরুত্ব ভিজিটরদের কাছে বেশি। তাই সার্চ ইঞ্জিনগুলো বেশি ব্যাকলিংক আছে এমন সাইটগুলোকে রেঙ্ক করিয়ে থাকে।

সাইট রেঙ্কিং - ব্যাকলিংক

Ahrefs প্রায় ৯২০ মিলিয়ন ওয়েবপেজ নিয়ে করা এক গবেষণার ফল প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে যেসকল ওয়েবপেজের ব্যাকলিংক লিংক বেশি ছিল তাদের অর্গানিক ট্রাফিক বেশি ছিল অন্যদের তুলনায়।

রেফারেল ট্রাফিক

রেফারেল ট্রাফিক মানে হল অন্য সাইট থেকে ট্রাফিক আপনার সাইটে আসা। তাই অথেন্টিক বা জনপ্রিয় পেজে যদি আপনি Backlink নিতে পারেন তাহলে অর্গানিক ট্রাফিকের পাশাপাশি  রেফারেল ট্রাফিকও বেশি পাবেন।

আবিষ্কারযোগ্যতা

সার্চ ইঞ্জিনগুলো Backlink লিংকে ভোট হিসেবে মনে করে থাকে। তারা মনে করে বেশি ভোট মানে বেশি অথেন্টিক। তাই তারা অথেন্টিক পেজেগুলোতে বার বার পুনরায় ভিজিট করে নতুন লিংক ও তথ্যের জন্য।

জনপ্রিয় পেজগুলোতে সার্চ ইঞ্জিনের আনাগোনা বেশি। ঐসকল পেজে থাকা লিংকগুলোকে সার্চ ইঞ্জিন গুরুত্ব দেয় এবং দ্রুত ইনডেক্স করে।

প্রো টিপসঃ আপনার ওয়েবসাইটে হাই কোয়ালিটি পেজে আপনার অন্য পোস্টের Backlink দিতে পারেন। এটিকে  ইন্টেরনাল Backlink বলে।

ব্যাকলিংক কত প্রকার?

ব্যাকলিংক দুই ধরণের হয়ে থাকে। যেমন:

  • ডু-ফলো ব্যাকলিংক (Dofollow backlinks)
  • নো-ফলো ব্যাকলিংক (Nofollow backlinks)

ডু-ফলো ব্যাকলিংক

ব্যাকলিংকের মধ্যে ডু-ফলো Backlink খুবই কমন কিন্তু এটি সাইটের রেঙ্কিং বৃদ্ধিতে বেশি ভূমিকা রাখে। ডু-ফলো ব্যাকলিংক যত পাবে সার্চ ইঞ্জিন ততই আপনার সাইট লিংক জুস (Link Juice) পাস করবে।

নো-ফলো ব্যাকলিংক

নো-ফলো Backlink সাইটের রেঙ্কিং বৃদ্ধি করে না কারণ এরা আপনার সাইট লিংক জুস পাস করে না। কিন্তু তাই বলে এটির কোন গুরুত্ব নেই এমনটা ভাবার কোন কারণ নেই। এরা সার্চ ইঞ্জিনকে রিলেটেড সাইট সম্পর্কে বুঝতে সহায়তা করে।

Types of Backlinks

ব্যাকলিংক কীভাবে তৈরী করবেন?

ব্যাকলিংক তৈরি করা একটু কঠিন। তবে High Quality Backlinks পাওয়ার জন্য আপনি কয়েকটি কাজ করতে পারেন।

গেস্ট পোস্ট

Backlink পাওয়ার জন্য খুব জনপ্রিয় মাধ্যম হল গেস্ট পোস্ট করা। গেস্ট পোস্ট মানে কি? এর মানে হল আপনি অন্য ব্লগে পোস্ট লিখবেন। এবং বিনিময়ে আপনার ব্লগের লিংক সেই পোস্টে দিয়ে দিবেন।

অনেক ব্লগ রয়েছে যারা গেস্ট পোস্ট অনুমতি দিয়ে থাকে। আবার অনেক ব্লগ রয়েছে যারা পেইড  Backlink দিয়ে থাকে।

প্রশ্ন হল গেস্ট পোস্ট কিভাবে করবেন?

গেস্ট পোস্ট-এর জন্য নিচের বিষয়গুলো অবশ্যই মাথায় রাখবেন-

  • একই নিস্ বা রিলেটেড ব্লগে গেস্ট পোস্ট করতে পারলে ভালো। অনেকেই মনে করে যেকোন সাইটে গেস্ট পোস্ট করে Backlink পেলেই হলো। তাদের এই ধারণা একদম ভূল। রিলেটেড সাইট না হলে এটি পেলেও কোন লাভ নেই। কারণ গুগল এলগোরিদম রিলিভেন্ট ব্লগে ব্যাকলিংক পেলে তা white hat links মনে করে থাকে। অন্যথায় তা black hat links মনে করে। ধরুন আপনি ফিটনেস নিস্ নিয়ে লিখছেন। আপনি যদি ফিসনেস রিলেটেড কোন ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক পান তাহলে তা রিলেভেন্ট। কিন্তু যদি ডিজিটাল মার্কেটিং ওয়েবসাইট ব্যাকলিংক নেন তাহলে কি তা রিলেভেন্ট হলো? কমেন্ট করে জানাবেন।
  • রিলেটেড ব্লগগুলো বুকমার্ক করে রাখুন এবং পরে সময় পেলে প্রতিদিন দুই তিনটা ব্লগে ঢুকে দেখুন তারা গেস্ট পোস্ট -এর অপশন দিয়েছে কিনা। যদি দিয়ে থাকে তাহলে তো ভালোই। আর না দিয়ে থাকলে তাদেরকে মেইল দিতে পারেন। মেইলটি অবশ্যই ক্রিয়েটিভ ও আকর্ষণীয় হতে হবে।
  • যেসকল ব্লগে গেস্ট পোস্ট করে ব্যাকলিংক নিতে চান, প্রথমে সে ব্লগের ডোমেইন অথরিটি (Domain Authority) চেক করে নিন। ডোমেইন অথরিটি আপনার ব্লগ থেকে কম হলে সেসব সাইটে ব্যাকলিংক না নেওয়াই ভালো।
  • গেস্ট পোস্ট -এর মাধ্যমে Backlink নিতে চাইলে অবশ্যই anchor text ব্যবহার করবেন। অবশ্যই তা ক্লিকেবল হতে হবে। প্রায়ই দেখা যায় anchor text এ অনেকেই তাদের কিওয়ার্ড দেন না। আমি পরামর্শ দিবো গেস্ট পোস্টে  anchor text এ আপনার লিংক পোস্টের কিওয়ার্ড অবশ্যই দিবেন।

লিংক পুনরুদ্ধার

এই টেকনিক তেমন কাজ দেয় না। লিংক পুনরুদ্ধারের কাজটি কিভাবে করবেন? এটি খুবই সহজ। এমন সাইটগুলোকে খুঁজে বের করা যারা আপনার ডোমেইন নাম মেনশন করেছে কিন্তু কোন anchor link দেয়নি। এরপর সাইট এডমিকে মেইল করতে পারেন।

Link Reclamation

তবে মেইল করার সময় সতর্ক থাকবেন। কোন কঠিন বা রাগী টাইপের মেসেজ না দিয়ে বরং তাকে প্রথমে ধন্যবাদ দিন কারণ সে আপনার ব্রান্ডকে মেনশন করেছে। এরপর বুঝিয়ে বলুন লিংক যুক্ত করলে আপনি খুশি হবেন এবং ভিজিটরটা আরও বেশি জানতে পারবে।

মুভিং মেন মেথড

ব্যাকলিংক পাওয়ার জন্য মুভিং মেন মেথড (Moving Man Method) বেশ জনপ্রিয়। তবে এটি কঠিন হলেও ভালো কাজ দেয়।

প্রথমে, সম্প্রতি কোন ওয়েবপেজ, ব্যবসা বা সেবার নাম পরিবর্তন হয়েছে, অথবা কোন প্রতিষ্ঠান তাদের নাম পরিবর্তন করেছে, অথবা তথ্যটি হালনাগাদ হয়নি এমন ওয়েবপেজ খুঁজে বের করুন।

দ্বিতীয়, তারপরে, সেই সাইটগুলি খুঁজুন যেগুলি এখনও এই পুরানো  তথ্য দেওয়া সাইটগুলোর লিংক তাদের পেজে দিয়ে রেখেছে৷

তৃতীয়, এরপর, তাদের মেইল করে জানিয়ে দিন তারা  আউট ডেট লিংক ব্যবহার করেছে। এবং তাকে অনুরোধ করবেন উপ টু ডেট তথ্য দিতে চাইলে যেন আপনার লিংকটি দয়।

ব্রোকেন লিংক বিল্ডিং

এটি অনেকটা মুভিং মেন মেথডের মত। পার্থক্য হল আপনাকে ব্রোকেন লিংক বা 404 error পেজ খুঁজে বের করতে হবে।

404 error পেজ খুঁজে বের করার জন্য Check My Links এক্সটেনশনটি ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যেকোন ওয়েবপেজের 404 error সহজে বের করতে পারবেন।

এরপর সাইটের এডমিনকে মেইল করে জানাতে পারেন কোন কোন লিংক ডেড রয়েছে। সবশেষে অনুরোধ করবেন আপনার ওয়েবপেজটি যেন তারা তাদের সাইট লিস্ট করে।

সবধরণের ব্যাকলিংক কি ভালো?

এর উত্তর হল না। না জেনে বুঝে Backlinks করলে ভালোর চাইতে ক্ষতি বেশি হতে পারে। তাই ব্যাকলিংক করার সময় সতর্ক থাকতে হবে। আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে কিছু বিষয় আপনাদের মাঝে তুলে ধরছি।

  • আমরা কমবেশি অনেকেই ফোরাম সাইটের কথা শুনেছি। ফোরামে সকলেই একাউন্ট খুলে প্রোফাইল তৈরী করতে পারে। তাই অনেকে মনে করেন ফোরাম সাইট ব্যাকলিংক পাওয়ার জন্য ভালো একটি জায়গা। তাদের এ ধারণাটি ভুল।তাছাড়া ফোরাম সাইটে স্প্যাম ভরা থাকে। তাই এ ধরণের ফোরাম সাইটগুলো কখনোই বাছাই করবেন না।
  • একই সাইটে একাধিক Backlinks নিলে কি কোন উপকার আছে? না। একটি সাইটে ১০০০ ব্যাকলিংক থাকার চাইতে ১০০ সাইটে ১ টি  করে ব্যাকলিংক থাকা অনেক ভালো। আপনি যদি না বুঝে একই সাইটে বারবার ব্যাকলিংক করেন তাহলে সার্চ ইঞ্জিন এটিকে স্পামিং মনে করবে। পরবর্তী গুগলের কোন উপডেট আসলে আপনার সাইট ধীরে ধীরে রেঙ্ক হারাবে।
  • এমনটা প্রায়ই দেখা যায় রিলেভেন্ট সাইটের থেকে ইরিলিভনেট সাইটে ব্যাকলিংক বেশি। ধরুন আপনার সাইটের নিশ ডিজিটাল মার্কেটিং। আপনি এমন কিছু সাইটের সাথে ব্যাকলিংক করলেন যাদের নিশ কার ইন্সুরেন্স। এমনটি করবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে।
  • নেচারালভাবে ব্যাকলিংক নেওয়ার চেষ্টা করুন। অনেক সময় দেখা যায় ব্যাকলিংকের কিছু লোভনীয় অফার চলে। এমন অফারে কখনোই পড়বেন না। কারণ এরা নিন্মমানের ব্যাকলিংক দিয়ে থাকে। ফলে আপনার সাইট স্পামিং মনে করে সার্চ রেঙ্ক হারাবে।

ব্যাকলিংক কিভাবে চেক করবেন?

ব্যাকলিংক চেক করার জন্য ফ্রি ও পেইড অনেক সাইট রয়েছে। আমি কিছু টুলসের নাম বলছি:

Google Search Console

Google Search Console আপনাকে আপনার সাইটের অর্গানিক সার্চ ট্রাফিক সামগ্রিক কর্মক্ষমতা সম্পর্কে তথ্য প্রদান করে থাকে। এটি সম্পূর্ণ। এটি ব্যবহার করার জন্য প্রথমে আপনার সাইটের মালিকানা ভেরিফাই করে নিতে হবে।

এরপর সাইন ইন করে সাইডবারে নিচে “Links” অপশনে ক্লিক করে আপনার ব্যাকলিংক ডিটেলস দেখতে পাবেন।

backlinks report using google search console

Ahrefs’ free backlink checker দিয়ে ফ্রি তে আপনার সাইটের ব্যাকলিংক চেক করতে পারেন।

আপনার ইউআরএলটি টাইপ করুন এরপর “Check backlinks.” এ ক্লিক করুন।

Ahrefs’ free backlink checker

এটি আমার প্রিয় একটি সাইট কিওয়ার্ড রিসার্চ থেকে শুরু করে অন পেজ এসইও করতে আমি SEMRush ব্যবহার করি। এটি পেইড।

SEMRush Backlink Analytics

আমার পরামর্শ

সাইট সার্চ ইঞ্জিনে রেঙ্ক করার জন্য ব্যাকলিংক রেঙ্কিং ফেক্টর হিসেবে কাজ করে। গুগল ছাড়াও অন্যান সার্চ ইঞ্জিনগুলো ব্যাকলিংকে গুরুত্ব দেয়। তাই সাইটের জন্য ভালো একটি হাই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক পাওয়া ভাগ্যের বেপার।

আমার পরামর্শ থাকবে ভালো ডোমেইন অথরিটি সাইটে ব্যাকলিংক নেওয়া। লো অথরিটি সাইটে ব্যাকলিংক অতোটা রেঙ্ক দেয় না।

তাই কিভাবে ব্যাকলিংক নিবেন সে সম্পর্কে ধারণা থাকা আবশ্যক। ভালো এভারগ্রীন কনটেন্ট খুব সহজে ব্যাকলিংক পায়। এরকারণ কি জানেন? এর কারণ হল কনটেন্টটি এতো সুন্দর ও তথ্যবহুল হয়েছে যার বদৌলতে অনেকেই বিভিন্ন সাইটে সেই পোস্টার রেফারেন্স দিয়েছে। অনেকে উইকিপিডিয়াতে ভালো পোস্টগুলোর রেফারেন্স দিয়ে থাকে।

আপনার ব্যাকলিংকগুলি পরীক্ষা করুন কারণ এতে করে আপনি বুঝতে পারবেন কোন লিঙ্ক-বিল্ডিং কৌশলগুলি কাজ করছে এবং কোনটি আপনাকে উন্নত করতে হবে। আশা করছি ব্যাকলিংক কিভাবে করবেন তা বুঝতে পেরেছেন। আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে জানান।


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

One Comment

মন্তব্য করুন

Related Articles

Back to top button