Uncategorized

নবম শ্রেণি বাংলা । অষ্টম সপ্তাহ । অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর

Rate this post

নবম শ্রেণি বাংলা । অষ্টম সপ্তাহ । অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১ এর উত্তর। Class Nine Bangla 8th week Assignment 2021 Answer

Class Nine Bangla 8th week Assignment 2021 Answer

“বঙ্গবাণী ও কপােতাক্ষ নদ উভয় কবিতাতেই মাতৃভাষা প্রীতির মাধ্যমে দেশপ্রেম প্রকাশ পেয়েছে” – মন্তব্যটির স্বপক্ষে তােমার যৌক্তিক মত উপস্থাপন কর

নির্ধারিত কাজঃ

“বঙ্গবাণী ও কপােতাক্ষ নদ উভয় কবিতাতেই মাতৃভাষা প্রীতির মাধ্যমে দেশপ্রেম প্রকাশ পেয়েছে” – মন্তব্যটির স্বপক্ষে তােমার যৌক্তিক মত উপস্থাপন কর

নমুনা উত্তরঃ

“বঙ্গবাণী ও কপােতাক্ষ নদ উভয় কবিতাতেই মাতৃভাষা প্রীতির মাধ্যমে দেশপ্রেম প্রকাশ পেয়েছে” – মন্তব্যটির স্বপক্ষে তােমার যৌক্তিক মত উপস্থাপন কর হল ঃ

নিজ দেশ ও জন্মভূমির প্রতি মানুষের অকৃত্রিম ভালোবাসাই স্বদেশপ্রেম। স্বদেশের প্রকৃতি ও ধূলিকণা আমাদের নিকট অতি প্রিয় ও পবিত্র। শিশুকাল থেকেই মানুষ স্বদেশের মাটিতে বেড়ে ওঠে। মায়ের বুক যেমন সন্তানের নিরাপদ ও নিশ্চিন্ত আশ্রয়, স্বদেশের কোলে মানুষ তেমনি নিরাপদ ও নিশ্চিত আশ্রয় লাভ করে। স্বদেশকে ভালোবাসার মাঝেই মানব জীবনের চরম সার্থকতা নিহিত। বিভিন্ন কবি সাহিত্যিক তাদের কবিতা, কাব্য, নাটক, গান, উপন্যাস প্রভৃতি লেখনির মাধ্যমে তাদের দেশপ্রেমকে ফুটিয়ে তুলেছেন মাতৃভাষার মাধ্যমে। তেমনি দুইটি কবিতা হল আবদুল হাকিমের “বঙ্গবাণী” মাইকেল মধুসূদন দত্তের “কপোতাক্ষ নদ” উভয় কবিতাতেই খুবই চমৎকারভাবে মাতৃভাষার প্রতি এক গভীর মমত্ববোধের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। 

“বঙ্গবাণী” কবিতায় কবি মাতৃভাষার প্রতি এক গভীর টান উপলব্ধি করেছেন । সেই সাথে অন্য ভাষার প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়েছেন। এবং শুধু তাই নয়, মাতৃভাষার সাথে ধর্মীয় দিকটি কবি অত্যন্ত নিপুণভাবে তুলে ধরেছেন। যে ভাষা সকলের বোধগম্য সে ভাষতেই কথা বলা বা লেখা বাঞ্ছনীয় । তাই কবি নিজ ভাষাতেই গ্রন্থ রচনায় মনোনিবেশ করেছেন। এতে মাতৃভাষার প্রতি শ্রদ্ধার পাশাপাশি দেশপ্রেমের একটি নিদর্শন কবি অংকিত করেছেন। কবি একদিকে যেমন মাতৃভাষার প্রতি গভীর মমত্ববোধ দেখিয়েছেন অন্যদিকে খুবই কঠোর ভাষায় ওই সকল লোকদের জন্ম ও পরিচয় নিয়ে সন্ধিহানের কথা বলেছেন যারা নিজ মাতৃভাষার প্রতি শ্রদ্ধাশীল নয় । তাদেরকে নিজ দেশ ছেড়ে দিয়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার কথা বলেছেন। এভাবেই বঙ্গবাণী কবিতায় দেশপ্রেমের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে মাতৃভাষার প্রীতির মধ্য দিয়ে। 

“কপোতাক্ষ নদ” কবিতায় কবির স্মৃতিকাতরতা আবরণে তার ভিতর দেশপ্রেমের প্রকাশ ঘটে। নিজ মাতৃভূমি ছেড়ে কবি যখন বিদেশে পাড়ি জমালেন ঠিক তখনি হৃদয়ে অনুভব করলেন স্বদেশের প্রতি এক অদ্ভুত টান। আর এই টান সৃষ্টি হয়েছে স্মৃতিচারণ করা কপোতাক্ষ নদীকে কেন্দ্র করে। কবি চিত্তে বারবার জেগে উঠেছে দেশের প্রতি অন্তিম প্রেম আর এই প্রেমের জাগরণ ঘটে কবি যখন বিদেশে বসে শৈশবের নদীর কলকল ধ্বনি শুনতে পান। কবি মনে সংশয় জাগে নদীর দেখা পাবেন কিনা। 

কবিতা দুইটিতে দেশপ্রেমের রূপ দুইটি ভিন্ন আঙ্গিকে ফুটে উঠেছে। মাতৃভুমির প্রকৃতির প্রেমে বিদেশরত কবি এতটাই মোহ ছিলেন যে বারবার শৈশবের স্মৃতিচারণ করেছিলেন আর এদিক ওদিক শৈশবের নদীকে খুঁজতে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন। এক অজানা আশঙ্খা কবি মনে বারবার উঁকি দিচ্ছিলো যদি আর সেই নদীর দেখা না পাই।  দেশপ্রেম থেকেই এমন অনুভূতির সৃষ্টি হয়। ঠিক একই রকম অনুভুতি প্রকাশ পেয়েছে “বঙ্গবাণী” কবিতায় । মাতৃভাষার প্রতি কবি তার গভীর উপলব্ধি ব্যক্ত করেছেন। মাতৃভাষায় গ্রন্থ রচনায় মনোনিবেশ করেছেন। মাতৃভাষার প্রতি যারা অবহেলা করে তাদের প্রতি কবি তীব্র ঘৃণা করে বলেছেন তারা কেন নিজ দেশ ছেড়ে অন্যত্র চলে যায় না। কবি মনে মাতৃভাষার প্রতি যে সম্মান ও ভালবাসার উদয় হয়েছে তার পিছনে দেশপ্রেমের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। 


 এই রকম আরও তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন। এর পাশাপাশি গুগল নিউজে আমাদের ফলো করুন। 

Rimon

This is RIMON Proud owner of this blog. An employee by profession but proud to introduce myself as a blogger. I like to write on the blog. Moreover, I've a lot of interest in web design. I want to see myself as a successful blogger and SEO expert.

2 Comments

মন্তব্য করুন

Back to top button